ইন্ডিয়ান টুরিস্ট ভিসা করতে কত টাকা লাগে

বাংলাদেশ থেকে ইন্ডিয়াতে ভ্রমণের জন্য যেতে টুরিস্ট ভিসা বানাতে হবে। ভারত ও বাংলাদেশ পাশা-পাশি দেশ হওয়ায় ইডিয়ান ভিজিট ভিসার দাম অনেক কম। কিন্তু অন্য কোনো দেশ থেকে ভারতের ভিজিট ভিসা বানাতে লাখ লাখ টাকা লাগতে পারে। সাধারণত বাংলাদেশে ভারতের ভিজিট ভিসার দাম ৩২০০ থেকে ৫২০০ টাকা। তবে কিছু এজেন্সি অনুযায়ী ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকা লাগতে পারে। ইন্ডিয়ান টুরিস্ট ভিসা করতে কত টাকা লাগে তা বিভিন্ন এজেন্সিদের সাথে যোগাযোগ করবেন।

যেখানে কম দামে ভিসা বানাতে পারবেন, সেখান থেকে আবেদন করবেন। ভিসা আবেদনের জন্য আলাদা চার্জ নেওয়া হবে। এছাড়া ভিসা বানানোর পূর্বে পাসপোর্ট বানাতে হবে। একরই পাসপোর্ট এর দাম ১২ হাজার থেকে ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত। সন খরচ মিলিয়ে ভারতের টুরিস্ট ভিসা পেতে কত টাকা লাগে তা বিস্তারিত জেনেনিন।

ইন্ডিয়ান টুরিস্ট ভিসা করতে কত টাকা লাগে

টুরিস্ট ভিসার জন্য মেয়াদ থাকে। সাধারণভাবে টুরিস্ট ভিসার দাম ৫ থেকে ৬ হাজার টাকা। তবে ভিসার মেয়াদ, সদস্য সংখ্যার উপর নির্ভর করে এই খরচ বেড়ে যায়। ভিসা বানাতে আবেদন খরচ, প্রসেসিং খরচ ও ভিসা প্রদানের খরচ রয়েছে। সকল খরচ মিলিয়ে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা লাগে। আর পাসপোর্ট বানাতে প্রায় ২০ হাজার টাকা। এই সকল খরচ মিলিয়ে ভারতের ভিজিট ভিসার জন্য মোট ৩০ থেকে ৩৫ হাজার টাকা লাগবে। চাইলে ভ্রমণের জন্য ফ্যামিলি ভিজিট ভিসাও বানাতে পারবেন। সদস্য সংখ্যা অনুযায়ী ফ্যামিলি ভিজিট ভিসার খরচ নির্ভর করে।

ইন্ডিয়ান টুরিস্ট ভিসা করতে কত টাকা খরচ হবে

সাধারণত ইন্ডিয়ার টুরিস্ট ভিসার দাম ৬ থেকে ১০ হাজার টাকা। তবে বাংলাদেশে ভিসা এজেন্সি এক এক দামে ভিসা বানিয়ে দেয়। ভারতের ভিজিট ভিসার জন্য আবেদন খরচ ২ থেকে ৩ হাজার টাকা। প্রসেসিং ও ভিসা প্রদানের খরচ ১ হাজার টাকা। ভিসার জন্য প্রথমে পাসপোর্ট বানাতে হবে। পাসপোর্ট জন্য ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা খরচ হবে। সকল কিছু মিলিয়ে ইন্ডিয়ান টুরিস্ট ভিসা করতে মোট ২৫ থেকে ৩০ হাজার টাকা খরচ হবে। আর ভিসার মেয়াদ যত বেশি দেওয়া হবে, তার খরচ তত বেশি লাগবে।

ভ্রমণের জন্য প্রতিজনের একটি করে ভিসা ও পাসপোর্ট লাগবে। চাইলে ফ্যামিলি ভিসাও বানাতে পারবেন। ফ্যামিলি ভিসার খরচ আরও বেশি হবে। ইন্ডিয়ান ভিসা এপ্লিকেশন সেন্টার (আইভেক), বাংলাদেশ উল্লেখ করা আছে, বাংলাদেশী পাসপোর্টধারীদের ভারতীয় ভিসার জন্য আবেদন করতে কোন ভিসা ফি নেই। তাহলে ২৫ হাজ্র টাকার মধ্যে ভ্রমণের জন্য ভিসা বানাতে পারবেন।

ভারতের টুরিস্ট ভিসা আবেদন কেন্দ্র ও ফি

বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় ভিসা বানানোর অফিস রয়েছে। এই সকল অফিস থেকে ভারোত ভ্রমণের জন্য ভিসা বানাতে পারবেন। সাধারত বাংলাদেশি নাগরিকদের জন্য ভারতের ভিসা আবেদন ফি বিন্যমুল্য দেওয়া হয়েছে। তবে ভিসা বানাতে হবেই। আর ভিসা বানাতে হলে অবশ্যই ৮ থেকে ১০ হাজার টাকা খরচ হবে।

ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্রআবেদনপত্র প্রতি ভিসা প্রসেসিং ফি (টাকায়)
আইভিএসি, ঢাকা(জেএফপি)৮০০
ময়মনসিংহ৮০০
বরিশাল৮০০
যশোর৮০০
খুলনা৮০০
সিলেট৮০০
রাজশাহী৮০০
রংপুর৮০০
চট্টগ্রাম৮০০
কুমিল্লা৮০০
ব্রাহ্মণবাড়িয়া৮০০
নোয়াখালী৮০০
বগুড়া৮০০
ঠাকুরগাঁও৮০০

ইন্ডিয়ান ভিসা এপ্লিকেশন সেন্টার (আইভেক), বাংলাদেশ

টুরিস্ট ভিসা বানানোর জন্য এটি অফিসিয়াল ওয়েবসাইট। এখান থেকে ভিসার জন্য আবেদন করা যাবে। এছাড়া ভিসার দাম, খরচ ও অন্যান্য বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন। https://www.ivacbd.com/ এটি তাদের ওয়েবসাইটের ঠিকানা। বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় তাদের অফিস আছে। এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে এর নোটিশ গুলো পড়ে নিবেন। এছাড়া যোগাযোগের জন্য বিভিন্ন নাম্বার দেওয়া আছে। এই নাম্বারে যোগাযোহ করে ভিসার খরচ সম্পর্কে আরও বিস্তারিত জানতে পারবেন।

শেষ কথা

ভিসা এজেন্সিদের উপরে ভিসার খরচ নির্ভর করে। সাধারণত ভারতের টুরিস্ট ভিসার জন্য কোনো আবেদন ফি নেওয়া হয় না। তবে ভিসা প্রসেসিং খরচ নেওয়া হবে। ১০ থেকে ১২ হাজারের মধ্যে ভারতের টুরিস্ট ভিসা বানানো যাবে। আর যদি পূর্বে পাসপোর্ট না করা থাকে, তাহলে মোট ৩০ থেকে ৩৫ হাজার টাকা লাগবে। বিভিন্ন এজেন্সি থেকে ইন্ডিয়ান টুরিস্ট ভিসা করতে কত টাকা লাগে যাচাই করে নিবেন।

আরও দেখুনঃ

ইন্ডিয়ান ভিসার জন্য প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

অস্ট্রেলিয়া কাজের ভিসা আবেদন করার নিয়ম

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top